অহেতুক

তিথীডোর's picture
Submitted by rifatsanjida on Thu, 30/10/2014 - 12:20pm
Categories:

ঘুম তাড়ানোর টোটকা হিসেবে ১৫ মিনিটের মধ্যে ঝড়ের বেগে লেখা। গালমন্দ বেশি খেলে হয়তো আবার ঝড়ের বেগে মুছেও দিতে পারি।
কী আছে জীবনে, কন? হাসি
___________________________________

'Death really did not matter to him but life did,
and therefore the sensation he felt when they gave their decision
was not a feeling of fear but of nostalgia...'
__________________________________________________________

আমরা যখন বিদায় নিলাম, তখন বৃষ্টি হচ্ছিল। মানে গুঁড়িগুঁড়ি কিছু জলকণা ঝরে পড়ছিল আমাদের ঘামে ভেজা কপালে। বৃষ্টি পড়ছিল কবিতায়, শূন্য শব্দে, ছেলেবেলার বাসি হয়ে যাওয়া পুরোনো অভিমানে, তার চাইতেও পুরোনো রেস্তোরার পর্দা সরানো আধময়লা জানালায়। সন্ধ্যায় মেঘের রঙ হয়ে উঠেছিল অন্ধকার। তারপর যখন ঝুম বৃষ্টি নামলো শহরের উঠোনে, তখন বাসস্টপে শুধু ঠুকঠুক শব্দ, ঘরফেরতা মানুষের ভিড়, পায়ের তলায় আধখাওয়া সিগারেট, মোবাইলের বিচ্ছিরি রিংটোন, এলোমেলো চুল.. তখন তুমি একটু ঝুঁকে খামটা বের করলে।

অনেকগুলো শব্দ আটকে ছিল খামটার ভিতরে। অনেক ক'টা কথা। খামটা ছিল বাদামি, খামটা ছিল শক্ত করে বন্ধ করা। যাতে ঐ হাতে আঁকা শব্দগুলো আর কারো চোখের জানালায় বেখেয়ালে না পৌঁছায়। তারপর যখন কফির কাপের পাশ ঘেঁষে থাকতে থাকতে খামটা গাঢ় বাদামি হতে শুরু করলো, তখন হাত বাড়িয়ে আমি খামটা খুলে ফেললাম। আমার মন খারাপ হলো না একটু, আমি অবাকও হইনি তখন ঠিক। চিঠিটা পড়া শেষ হতেই আমার মনে হলো বোধহয় একটা শতাব্দী ধরে আমরা এমন জানালার কাঁচ ঘেঁষা চেয়ারে মুখোমুখি বসে আছি।
আমার একটুও মায়া হলো না, বোধহয় আমি একটা ভীষণ রকম শক্ত মনের মানুষ।
অথবা মন বলে কিছু ছিলোই না আমার কখনো।

কিন্তু আর কোন অজুহাত ছিলো না সময়টাকে সেখানে থামিয়ে রাখার মতো। সেজন্য ঘড়িটা এগিয়ে গেল, সবসময় যেভাবে এগোয়। শহরজুড়ে আর কোন গল্প বাকি ছিল না, ছিলো না তোমাকে দেয়ার মতো আধখাওয়া পেয়ারার মতো কোন আধচিলতে গল্পও। আমাদের পায়ে ঠিক আগের মাপের জুতোই ছিলো, কিন্তু ঐ যে.. ঐ বিচ্ছিরি চিঠিটা জানিয়ে দিচ্ছিল পথিকদের গন্তব্য এখন থেকে একদম আলাদা।

আমার তাও কেন যেন মনে হচ্ছিল পুরো চিঠিটা আসলে ভুল।
মনে হচ্ছিলো করিডোরের অন্যপাশে আরেকটা গল্প আছে, সে গল্পটা ঝকঝকে হলুদ, সে গল্পটা আলাদা, সে গল্পটা অ-নেক বেশি রঙিন।

কিন্তু সাবানের বুদবুদের মতো ঐ করিডোরটা হঠাৎ মিলিয়ে গেলো নিঃশ্বাসে। আমি দেখলাম চারপাশটায় তাকিয়ে, কোনায় টেবিলে শুধু একটা মানুষ বসে। মানুষটা একা, মানুষটার সামনের কাপে আইসক্রিম আর টেবিলজুড়ে পুরো দিনটার হারিয়ে যাওয়ার চিহ্ন।

সব ওলোটপালোট দিন আর ভুলে যাওয়া অস্তিত্বটুকু নিয়ে আমরা শেষবারের মতো পাশাপাশি দাঁড়ালাম, তারপর জানালাম ফিরতে হবে। অনেক দেরি হয়ে গেছে এর মধ্যেই। একটা বিশাল শূন্য প্রান্তরের ছবি মাথায় নিয়ে দু'জন যখন দু'দিকে হেঁটে যাচ্ছি আর হিজিবিজি স্বপ্নগুলো ছেঁড়া টিস্যুর মতো পালিয়ে যাচ্ছে একা একা... তখন আমি ভাবছিলাম হয়তো এরকম থেমে থাকা কোন পথের শেষটাতেই ছিল সিন্দুকে ভরা চুনিপান্নার স্তুপ।
নাহ, দুজনের সেই চুপকথাটা আর রূপকথার গল্পের মতো হলো না।

অথচ কী চমৎকার একটা জীবন-ই না আমাদের হতে পারতো!


Comments

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

মন খারাপ

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

তিথীডোর's picture

এক খাস চাঁটগায়ের হুজুর (আমিও মেড ইন চট্টগ্রাম) ছোটবেলায় আমাকে আরবি পড়াতেন। একদিন এলেন, দেখলেন আমি কিছু একটা নিয়ে জিদ করে হাঁউমাউ করে হাত-পা ছুঁড়ে কাঁদছি। শিক্ষক শুধালেন- তিথী, তুমি খাঁন্দো ক্যানো?

সত্যানন্দ, আপনি খাঁন্দেন ক্যানো? হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

খইথাম ন! খিছু খথা থাখ না ঘুফন! খাইছে

আর কান্দা আর মন খ্রাপ এক হইল?
বরকে কি আপনি বরকন্দাজ বলেন?
আলু কিনতে গিয়ে আলুবোখারা খোঁজেন? চিন্তিত

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

তিথীডোর's picture

পুলাপানরে সামান্য মন খারাপ করতে দেখলে আমার উল্টো আরো কান্দাই দিতে মঞ্চায়।
মানে এক ধরনের পৈশাচিক আনন্দ।
মানে আমি বিশুদ্ধ নারীপেমী তো। হে হে। শয়তানী হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

রেগে টং
ইয়ে, মানে...
চিন্তিত

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

ষষ্ঠ পাণ্ডব's picture


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

অতিথি লেখক's picture

জীবনটায় যদি প্যারালাল কতগুলো প্রসেস রান করা যেত কত ভালোই না হত তাই না ? মন খারাপ

==============================
দস্যু ঘচাং ফু

তিথীডোর's picture

In three words I can sum up everything I've learned about life:
it goes on...
হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

তারেক অণু's picture

জনাব রবার্ট ফ্রস্টের বয়ান

তিথীডোর's picture

আবার জিগস।

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

শিশিরকণা's picture

ও খুকি! তুমি তো বড়ো ভালো লেখো হে!

~!~ আমি তাকদুম তাকদুম বাজাই বাংলাদেশের ঢোল ~!~

তিথীডোর's picture

আহা, এতদিনে গরিবের কদর হইলো! [উদাস ইমো]

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সুলতানা সাদিয়া's picture

মাত্র ১৫ মিনিটে এত চমৎকার লেখা যায়!

Quote:
একটা বিশাল শূন্য প্রান্তরের ছবি মাথায় নিয়ে দু'জন যখন দু'দিকে হেঁটে যাচ্ছি আর হিজিবিজি স্বপ্নগুলো ছেঁড়া টিস্যুর মতো পালিয়ে যাচ্ছে একা একা... তখন আমি ভাবছিলাম হয়তো এরকম থেমে থাকা কোন পথের শেষটাতেই ছিল সিন্দুকে ভরা চুনিপান্নার স্তুপ।

অনেক কথার স্তুপ, অথচ কথা অল্প!

-----------------------------------
অন্ধ, আমি বৃষ্টি এলাম আলোয়
পথ হারালাম দূর্বাদলের পথে
পেরিয়ে এলাম স্মরণ-অতীত সেতু

আমি এখন রৌদ্র-ভবিষ্যতে

তিথীডোর's picture

হাহা, এটা হলো টাইম মিনিমাইজেশন থিওরির এখন পর্যন্ত কুইকেস্ট আউটপুট। দেঁতো হাসি

পড়ার জন্য ধন্যবাদ। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

ইয়াসির আরাফাত's picture

১৫ মিনিট হিসাবে আউটপুট চমৎকার। বড় করলে আরও ভালৈত মনে হয়। লেখা -গুড়- হয়েছে

তিথীডোর's picture

বড় করলে মনে হয় বেসাইজ হয়ে যেতো। হাসি

অট : আপনার সিগনেচার লাইনের কয়েকটা তারা কমিয়ে দিন। বক্স ছাপিয়ে চলে যাচ্ছে তো!

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

Sohel Lehos's picture

বিষাদময় কবিতার মত লেখা। হাহাকার জাগানিয়া মন খারাপ

সোহেল লেহস
----------------------------------------------
হে দূর্দান্ত ভাবনারা, হেয়ালি করো না। এসো এ বাহুডোরে।

তিথীডোর's picture

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

রোমেল চৌধুরী's picture

জীবন মানে তো শুধুই সামনে চলা নয়
মাঝে-মধ্যে পেছনে ফিরে চাওয়া...
ফিরতে ফিরতে এগিয়ে যাওয়া...

তোমাকে তো আর 'খুকি' বলা যাচ্ছে না গো খুকি!

------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
আমি এক গভীরভাবে অচল মানুষ
হয়তো এই নবীন শতাব্দীতে
নক্ষত্রের নিচে।

তিথীডোর's picture

মা, আমার প্রোমোশন হয়েছে মা। এবার আমি বড় হয়েছি। দেঁতো হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

রোমেল চৌধুরী's picture

মাকে বলো, এবার তোমায় 'বে' দিতে হবে!

------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
আমি এক গভীরভাবে অচল মানুষ
হয়তো এই নবীন শতাব্দীতে
নক্ষত্রের নিচে।

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

হাততালি দাওয়াত দিয়েন দেঁতো হাসি

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

তিথীডোর's picture

সব পথ এসে, মিলে গেল শেষে...
ঘুরেফিরে কবিতা আবার পুরাতন ভৃত্যের দিকে চলে গেছে! ম্যাঁও

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

এট্টূ ভালমন্দ খাব ভাবলুম ইয়ে, মানে...

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

মেঘলা মানুষ's picture

মন খারাপ

তিথীডোর's picture

হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

অমি_বন্যা's picture

সল্প সময়ের গল্প তবে অনুভূতিগুলো অল্প না। আপনি দারুন লেখেন তিথি দি। এবারকার এই লেখাটিও দারুণ তবে হারিয়ে যাওয়া অথবা না পাওয়ার বেদনারা উঁকি দিল। আবার নাও হতে পারে।

তিথীডোর's picture

গল্পের কোথাও বাস্তবের কোন ছায়া নেই। হাসি
বেদনা আছে, সেটা তো অবধারিত।
জীবন তো বেদনাময়-ই। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

তাহসিন রেজা's picture

লেখাটা ভালো লাগল। বড় গল্প পড়তে চাই আপনার হাসি

------------------------------------------------------------------------------------------------------------
“We sit in the mud, my friend, and reach for the stars.”

অলীক জানালা _________

তিথীডোর's picture

মিডটার্মের মাসে নেকাপড়ার খেতা পুড়িয়ে দুটা পোস্ট দিয়েছি।
মডুরা বোনাস দিলে তাপ্পর বড়গল্প লিখব। খাইছে

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

ধুসর জলছবি's picture

এ তো পুরো দুনিয়া কাঁপানো ১৫ মিনিট হাসি শুধু প্রতিটা লাইন না প্রতিটা শব্দও অন্যরকম সুন্দর হয়েছে। দারুণ। চলুক

তিথীডোর's picture

খাইসে! লইজ্জা লাগে লইজ্জা লাগে
কমেন্ট অফ দ্য মান্থ!
থেঙ্কিউ। দেঁতো হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

রংতুলি's picture

Quote:
দুনিয়া কাঁপানো ১৫ মিনিট

চলুক ভালো বলছ। হাসি

তিথীডোর's picture

হাহা। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

অতিথি লেখক's picture

ভালো লাগা। অনেক।

শুভকামনা জানবেন। অনিঃশেষ। সবসময়।

দীপংকর চন্দ

তিথীডোর's picture

পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

রংতুলি's picture

কি সুন্দর লিখো তুমি! এরকম লিখলে তো দুনিয়াদারি জারে পুরে ১৫ মিনিট টাইম সেটাপ দিয়ে দিয়ে শুধু লিখেই যাওয়া উচিৎ... হাসি

তিথীডোর's picture

সব ছেড়েছুড়ে শুধু বোলগ দিয়ে ইন্টারনেটে লিখলে দুনিয়াদারির বাকি অংশের তেলগ্যাসপানিবিদুৎ তথা অন্নবস্ত্র ইত্যাদি ইত্যাদির সাপ্লাই আসবে কোথা থেকে? হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

শাব্দিক's picture

Quote:
এরকম লিখলে তো দুনিয়াদারি জারে পুরে ১৫ মিনিট টাইম সেটাপ দিয়ে দিয়ে শুধু লিখেই যাওয়া উচিৎ...

সহমত।

---------------------------------------------------------
ভাঙে কতক হারায় কতক যা আছে মোর দামী
এমনি করে একে একে সর্বস্বান্ত আমি।

রিক্তা's picture

লেখা পড়ে আমার কেন যেন মনে হচ্ছে আপনি ভালো কবিতা লেখেন/লিখবেন।

--------------------------------
হে প্রগাঢ় পিতামহী, আজো চমৎকার?
আমিও তোমার মত বুড়ো হব – বুড়ি চাঁদটারে আমি করে দেব বেনোজলে পার
আমরা দুজনে মিলে শূন্য করে চলে যাব জীবনের প্রচুর ভাঁড়ার ।

তিথীডোর's picture

কবিতা! অ্যাঁ
চটপটির কসম, আমি সেই ইন্টার পাশের পর-ই বাংলা পদ্য পড়া ছেড়ে দিয়েছি।
লেখা তো দূর অস্ত। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

শাব্দিক's picture

এইটা ঘুম তাড়ানোর জন্য লেখা????
থাক কিসু কমু না।

---------------------------------------------------------
ভাঙে কতক হারায় কতক যা আছে মোর দামী
এমনি করে একে একে সর্বস্বান্ত আমি।

তিথীডোর's picture

আমি এমনিতে রাতে ঘুমাই বড়জোর পাঁচ/সাড়ে পাঁচ ঘন্টা।

কিন্তু যেকোন অ্যাসাইনমেন্ট সাবমিশনের আগের রাতে খালি চুম্বকের মতো বিছানা-বালিশ টানতে থাকে। তখন সে আকর্ষণ এড়াতে টানা ফেসবুক গুঁতাই, গুডরিডসে আপডেট দেখি, ফ্লিকার ঘাঁটি ইত্যাদি ইত্যাদি।
আর বেশি ভাব এলে ব্লগ লিখুন সেকশনে চলে যাই। হে হে। দেঁতো হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

সাফিনাজ আরজু's picture

বেড়ে হয়েছে হে বালিকে!
চমৎকার লেখা!!!

মেজাজ খারাপ ছিল, মাত্র তোমার লেখা পড়ে সবকিছু কুল হয়ে গেল। থাঙ্কু হে চাল্লু

__________________________________
----আমার মুক্তি আলোয় আলোয় এই আকাশে---

তিথীডোর's picture

সক্কাল সক্কাল তোমার মন্তব্য দেখে আমারো দিল খুশ হয়ে গেলো। লইজ্জা লাগে

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

গগন শিরীষ 's picture

চমতকার ! মাত্র পনের মিনিটে? আপনি তো টি-টোয়েন্টি স্টাইলে লেখেন মনে হয়!

তিথীডোর's picture

আমার পেশেন্স জিনিসটা কম আসলে।
মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

অতন্দ্র প্রহরী's picture

বেশ সুন্দর একটা গল্প তো! কেমন বিষাদমাখা দৃশ্যকল্প ফুটে উঠেছে শব্দবাক্যে ভর করে। হাসি

তিথীডোর's picture

ধন্যবাদ, ধন্যবাদ। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

নীলকমলিনী's picture

কি দারুন লিখেছো! মনে হলো খুব মিস্টি একটা কবিতা পড়লাম।

তিথীডোর's picture

থ্যাঙ্কিউ আপু। লইজ্জা লাগে

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

এক লহমা's picture

"সত্যানন্দ, আপনি খাঁন্দেন ক্যানো? হাসি " - গড়াগড়ি দিয়া হাসি

--------------------------------------------------------

এক লহমা / আস্ত জীবন, / এক আঁচলে / ঢাকল ভুবন।
এক ফোঁটা জল / উথাল-পাতাল, / একটি চুমায় / অনন্ত কাল।।

এক লহমার... টুকিটাকি

Post new comment

The content of this field is kept private and will not be shown publicly.