এই পদ্মা, এই মেঘনা, এই যমুনা সুরমা নদী তটে

তারেক অণু's picture
Submitted by tareqanu on Thu, 13/06/2013 - 9:04am
Categories:

481802_10152837063465497_1046771073_n

নদীপ্রধান দেশের মানুষ আমি। শৈশব, কৈশোর কেটেছে পদ্মাতীরের রাজশাহীতে। পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, সুরমা, কর্ণফুলী, ব্রহ্মপুত্র, নাফ, ইছামতী, ধলেশ্বরী কত অসম্ভব সুন্দর নদীগুলো আমাদের চিরসবুজ পলিমাটির দেশটা তৈরি করেছে লক্ষ হাজার বছর ধরে, তাই কোন দেশে গেলেই সেখানকার স্থানীয় নদী দেখার জন্য মন আনচান করে, হয়ত সেই নদীর তীরে ইতস্তত পথ ভুলে বেড়ানো কোন শিশুকে দেখে রোমন্থন করি নিজের শৈশব, পৃথিবীর সব নদীর জেলেকেই মনে হয় অতি আপন পদ্মাপারের জেলে। সোজা কথায় বলি- আমি নদী জমায়। বিভিন্ন চিত্রবিচিত্র নদী, তাদের বাঁক, লোকজন, জীবনযাত্রার সাথে একাত্নতা বোধ করি।

আজকের ছবিগুলো সবই বাংলাদেশের নানা প্রান্তের, এই বছরের প্রথম আড়াই মাস দেশে অবস্থানের সময় তোলা।

এই পোস্টটি আমাদের সবার প্রিয় মেহবুবা জুবায়ের ভাবীর জন্য ( ভাবীর সাথে এবার অতি অল্প সময়ের জন্য দেখা হয়েছিল, তার মাঝেই উনি আমেরিকা ভ্রমণের স্পন্সর হতে রাজি হয়েছেন !!!)

অনুপ্রবেশ
9998_10152740777535497_1482822129_n

শীতের পদ্মা
984004_10152871223615497_2128263710_n

সূর্যসৈনিক
550345_10152766572855497_98913098_n

সুপ্রভাত বুড়িগঙ্গা
IMG_1531

এককালের প্রমত্তা আত্রাই আজ স্থবির
IMG_0056

লালচোখের এই জলদাসের সাথে দেখা হয়েছিল উপকূলে, উনি কি হার্মাদদের বংশধর?
487594_10152819790820497_942895633_n

নদীনিরবধি
547634_10152750736075497_1598891778_n

বেদের বহর
600698_10152514553810497_319499604_n

সূর্য, গরু, প্রতিবিম্ব
270958_10152443993475497_2019752768_n

পঙ্খিরাজ ও সওয়ার
251012_10152862394870497_1833498559_n

হার্ডিঞ্জ সেতু
165045_10152410731360497_1045738089_n

জীবনের ভার
164674_10152721552730497_152849262_n

মিশরীয় দেবতা রা-এর চোখ বাংলার নৌকায়?
581593_10152679634940497_694424101_n

কাপ্তান
578316_10152700714605497_1680964824_n

অলৌকিক জলযান
69202_10152514554020497_355266342_n

ফ্রম নৌকা টু রিকশা
66855_10152745071500497_910078585_n

আশা না হারানোর দল
32635_10152754705390497_1999916232_n

পাড়ের শৈশব
21092_10152783523370497_905007977_n

এবং সুন্দরবন
11090_10152732171995497_1386871478_n

জলের বাঘ
576862_10152679634935497_2103154931_n

কুয়াশা
575685_10152707183835497_382416117_n

নিষ্পাপ
561854_10152730407250497_1129965822_n

মার্স কলিং, আর্থ?
969708_10152865252045497_26378786_n

কুবেরের বিষয়আশয়
529272_10152750338400497_1580490265_n

আমার সোনার বাংলা
946495_10152805904450497_685430111_n

দৈনন্দিন
945259_10152811043125497_269977626_n

রূপকথা
942712_10152806192340497_1590626048_n

স্বর্ণস্পর্শ
945628_10152813894875497_295142602_n

গুণটানা-১
529631_10152744514605497_242155672_n

সীমান্তে
IMG_9881

সাঁকো
IMG_9876

বগুড়ার এই শীর্ণ নদীটির একটি অপূর্ব নাম আছে, বাঙালী! বাঙালী নদী!
IMG_8363

বাঁশের ভেলা, ভেলার বাঁশ
IMG_1978

অভিযাত্রী
942533_10152810716650497_809925578_n

ফাঁদ
532772_10152766747730497_994015397_n

সেতু
IMG_1504

জীবন
IMG_1302

গুণটানা-২
IMG_1090

বন্দর
IMG_5990

চর
IMG_5248

দ্বীপ
IMG_5233

বিকল্প
IMG_2288

গুণ টানা-৩
IMG_5243

মমতা
IMG_1812

বাজার
IMG_1736

একাকী
IMG_1773

বালুচরা
IMG_1807

গতি
934692_10152873650200497_2088931778_n

প্রযুক্তি
923031_10152827303895497_1032959572_n

আভা
922679_10152766703785497_681759101_n

পারাপার
941771_10152848255845497_177211525_n

ভাটা
534891_10152712165195497_1033731317_n

নদীর গোধূলি
IMG_1525

রূপালী দ্বীপ
IMG_5229

প্রহরী
IMG_5224

দক্ষিণ
528854_10152442312730497_1296889878_n

পূর্ব
528447_10152739746315497_1435804060_n

আমারে নিবা মাঝি লগে?
603500_10152834126635497_493491145_n

পর্বতারোহী এম এ মুহিতের তোলার এই ছবিটি আমার বিশেষ প্রিয়, কেন জানি রবি ঠাকুরের একটি গান মনে করিয়ে দেয় দৃশ্যটা-

তুমি ডাক দিয়েছ কোন্‌ সকালে কেউ তা জানে না,
আমার মন যে কাঁদে আপন মনে কেউ তা মানে না ॥
ফিরি আমি উদাস প্রাণে, তাকাই সবার মুখের পানে,
তোমার মতো এমন টানে কেউ তো টানে না
526401_10152703452870497_938623830_n


Comments

তৌহিদ 's picture

অসাধারণ!! এই ভালো লাগা কোন ভাষায় প্রকাশ করা যায় সে ভাষা আমার জানা নেই!!

তারেক অণু's picture

নদীর ভাষায় বলেন- চোখ টিপি

সুজন চৌধুরী's picture
তারেক অণু's picture

চন্দ্রবিন্দু এয়েচে নাকি ?

তানিম এহসান's picture

কেবলই মুগ্ধতা নিরন্তর!

তারেক অণু's picture

শেষের কবিতাটা আসলেই দারুণ হয়েছে

অজানা পথিক's picture

ফাটাফাটি! অসাধারণ!

তারেক অণু's picture

মানে ঠুতোফাটা অ্যাঁ

মৃদুল সরকার's picture

অসাধারন ক্লিক। গুরু গুরু

ছবিগুলো দেখলে মনে হয়, সব কিছু ছেড়ে চলে যাই ছায়াসুনীবির গ্রামে, এই জঞ্জালে ভরা মিথ্যে কথার শহর আর তখন ভালো লাগে না মন খারাপ

তারেক অণু's picture

আসলেই, গ্রামে যাইতে ইচ্ছে করে

অতিথি লেখক's picture

খুব ভালো লাগল। প্রথমে ভেবেছিলাম যে, যেই-গুলো বেশী ভাল লাগবে তাদের নাম উল্লেখ করব। করতে গিয়ে তাদের সংখ‌্যা এত বেশী হয়ে গেল যে সেই চেষ্টা বাদ দিতে হল। হাসি
-একলহমা

তারেক অণু's picture

লেখা -গুড়- হয়েছে পুরাই হিট

সাফিনাজ আরজু's picture

অসাধারণ অনুদা!!!
হাততালি

__________________________________
----আমার মুক্তি আলোয় আলোয় এই আকাশে---

তারেক অণু's picture

কী ব্যাপার !বেশ কদিন পর দেখলাম!

ফারুক হাসান's picture

ছবির সাথে সাথে তাদের নামকরণও অসাধারণ। ক্যাম্নে পারেন?!

তারেক অণু's picture

নামে কিবা আসে যায়!

সচল জাহিদ's picture

দারুন একটা এলবাম। অনেক দিন পর গুন টানার ছবি দেখলাম। ছোটবেলায় ধলেশ্বরী নদী দিয়ে যখন দাদুবাড়ি ফিরতাম তখন দেখেছি।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

তারেক অণু's picture

সেই নদী আর নাই রে ভাই

মসীলক্ষণ পণ্ডিত's picture

নদী কেমন স্বপ্নের মতো ! "পাড়ের শৈশব", "স্বর্ণস্পর্শ", "রূপালী দ্বীপ" ছবি তিনটি, কী বলব, কালোত্তীর্ন হয়েছে !

কখনো আমি স্বপ্ন দেখি যদি
স্বপ্ন দেখবো একটি বিশাল নদী ।
নদীর ওপর আকাশ ঘন নীল
নীলের ভেতর উড়ছে গাঙচিল ।
আকাশ ছুঁয়ে উঠছে কেবল ঢেউ
আমি ছাড়া চারদিকে নেই কেউ ।
(হুমায়ুন আজাদ)

আর আমাদের নদীগুলোর নাম কী কাব্যিক ! ধানসিঁড়ি, কীর্ত্তনখোলা, সোমেশ্বরী, তিস্তা, চিত্রা, রূপসা, শঙ্খ, পায়রা, ময়ূর, মধুমতী, কাঁকন, বাঙালি, মহানন্দা, সুরমা, যমুনা, মেঘনা, পদ্মা ...
আহা ! আবার আসিব ফিরে ধানসিঁড়িটির তীরে- এই বাংলায় ...

তারেক অণু's picture

বাহ, চম্রকার মন্তব্য! নদীর মতই!

মসীলক্ষণ পণ্ডিত's picture

ম্যাঁও

তারেক অণু's picture
মসীলক্ষণ পণ্ডিত's picture

কোপাও মামা...

তারেক অণু's picture
নীলম's picture

ছোটবেলায় পড়েছি পদ্মাপাড়ের স্কুল রিভার ভিউ এ। স্কুল ছুটির পরে এক ঘন্টা বরাদ্দ থাকতো নদীর ধারে ঘুরে বেড়ানো আর খেলাধূলার জন্য। সেই থেকেই নদীর প্রতি আলাদা টান আমার। যেখানেই যাই সেখানকার নদীর বুকে নৌকা নিয়ে ঘুরে বেড়ানো চাই-ই চাই। কী যে অপূর্ব রূপ আমাদের নদীগুলো, আরও অপূর্ব তাদের নাম! মহানন্দা, সোমেশ্বরী, ধলেশ্বরী, জাদুকাটা আহা! এদের সাথে পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, রুপসা, সুরমা, কর্ণফুলী, তিস্তা তো আছেই।

ছবিগুলো নিয়েতো কিছু বলার নেই। রুপালী দ্বীপে এসে একদম আটকে গিয়েছিলাম। হাসি
ও, হ্যাঁ, বাঙ্গালী নদীর পাশে আমার নানার বাড়ী! দেঁতো হাসি

তারেক অণু's picture

বলেন কি! রিভার ভিউ স্কুলে আমার অনেক বন্ধুই পড়ত! শুধু নামটার জন্যই কী যে ভাল লাগত!

হ, বগুড়ার আসল ছোলেড় বাড়ী দেখতে যেয়েই বাঙ্গালী নাদির সাথে মোলাকাত

নীলম's picture

আচ্ছা, বেদের বহর ছবিটা কোথায় তোলা?

তারেক অণু's picture

সুনামগঞ্জে। শহর ছাড়িয়ে টাঙ্গুয়ার দিকে যাবার সময়। দেখা হয়েছিল নাকি?

ইমা 's picture

রেগে টং রেগে টং

ইমা

তারেক অণু's picture

দেশে ফিরেও মাথা ঠাণ্ডা হয় নাই !কি আজব !

ইমা's picture

আপ্নি মাথা ঠান্ডা রাখতে দিলেন কই এই সব ছবি-টবি দিয়ে। আপনাকে আমি নদী নিয়ে আফসোস এর ক্থা বলমাম আর আপ্নি বিনা পুরা একটা বেশি মাথা নষ্ট ব্লগ দিলেন!!

তারেক অণু's picture

তা অবিশ্যি পরে মনে পড়েছে!
আরেকটা আসিতেছে, ফিরোজা নদীটা খালি ঘুরে আসি আর ১০ দিন পরে। খাইছে

ইমা 's picture

যান ঘুরে আসেন। আমিও যাইতেছি সমুদ্র দেখতে প্রথম বারের মত।

তারেক অণু's picture

কস্কি মমিন! আপনার বাড়ীর নিচেই তো সমুদ্দুর !

সিরাজুল লিটন's picture

অস্সাধারণ সব ছবি; মুগ্ধ হয়ে গেলাম।

তারেক অণু's picture

ধন্যবাদ

সাক্ষী সত্যানন্দ's picture

চলুক
আহারে, ইনহাস্ত ওয়াতানাম

তারেক অণু's picture
মইনুল রাজু's picture

রূপকথা ছবিটা কোথায় তোলা?

ফেইসবুক
---------------------------------------------
এক আকাশের নীচেই যখন এই আমাদের ঘর,
কেমন ক'রে আমরা বলো হতে পারি পর. . .

তারেক অণু's picture

দক্ষিণবঙ্গে। কোন জেলা মনে পড়ছে না খাইছে

নজমুল আলবাব's picture

প্রথম ছবিটা এতো রঙিন, কতোদিন হয়ে গেলো এমন পাল দেখি না। প্রতিটা ছবিই ভালো লেগেছে।

আপনার লেখার শিরোনাম এতো লম্বা হয়। আরেকটু যত্ন নিন। সময় নিন।

তারেক অণু's picture

মধ্যযুগীয় বাংলা কাব্যে অতিপ্রাকৃত উপমার নান্দনিক ব্যবহার --- এই টাইপের শিরোনাম তো শুরুই করলাম না, মুরব্বি চিন্তিত

নজমুল আলবাব's picture

মাইর লাগাবো তখন

তারেক অণু's picture

গড়াগড়ি দিয়া হাসি আসলে নাম দিতে চেয়েছিলাম এই পদ্মা, এই মেঘনা, এই যমুনা সুরমা নদী তটে।

কিন্তু ছবি ব্লগ হওয়াতে বাকীটা দিতে হইল ওঁয়া ওঁয়া

নজমুল আলবাব's picture

ছবিব্লগ হলে সেটা শিরোনামে দিতে হবে এই বুদ্ধি কে দিছে?!! পোস্টের ট্যাগলাইন তাইলে দিছে কিসের জন্যরে পাপিষ্ঠ?

এই পদ্মা, এই মেঘনা, এই যমুনা সুরমা নদী... কতো সুন্দর একটা শিরোনাম হতো।

তারেক অণু's picture

আগে কইবেন না !গর্তের ভিতরে থেলে ফাল পাড়লে হইব!

নেহাত সিলেটী জানি না দেইখ্যা বাইচ্যা গেলেন।

নজমুল আলবাব's picture

গর্তের ভিতর কই ফাল পাড়লাম। পোস্টে এসে বল্লাম মিয়া, একেবারে মানবসমুদ্রে।
আর আগে বল্লে হবেনাতো। বলে ঠিক করানো আর নিজে ঠিক করাতো দুই রকম বিষয়। নিজে থেকে ঠিক করলে পরের বার আরো সুন্দর হবে। হাসি

সিলেটি অতি সুন্দর, সহজ ভাষা। চাইলেই শেখা যায়।

তারেক অণু's picture

সিলেটি অতি সুন্দর, সহজ ভাষা। চাইলেই শেখা যায়।

হ , গুরু আলী সাহেব বলেছিলেন বাংলা ভাষা সিলেটে যেয়ে নিহত হয়েছে

স্যাম's picture

নদী, পাড়ের মানুষ, বাজার, জীবিকা, পরিবহণ নানা কিছু উঠে এসেছে... এসেছে শৈশব, প্রকৃতি আর বাংলাদেশটা মিলেমিশে।অসাধারণ এলবাম! ব্যানার করার ছবি আছে অনেকগুলো হাসি
আর আপনার লেখার একটা আকর্ষনীয় দিক হল অনেক কিছু ছুঁয়ে যাওয়া - হার্মাদ, মিশর, কবিগুরু কিছুই বাদ পড়েনা... গুরু গুরু

(...তোমার মতো এমন টানে কেউ তো টানে না - মাসুদ রানা আর তারেকাণুর কথা এই লোক আগেই জানতেন খাইছে )

তারেক অণু's picture

এর স্যাম দা, ব্যানার ব্যানার কইরেই গ্যালেন, করলেন এর কই ওঁয়া ওঁয়া , আজ পর্যন্ত ১ হালিও হয় নাইক্যা

স্যাম's picture

ব্যানার হচ্ছে, হবে হাসি আপ্নার জীবনানন্দ সিরিজ নিয়ে একটা প্ল্যান হয়েছিল - ঐটা একটু শুরু করা দরকার, হিম্ভাই আর অনিকেতদাকে একটু লাইনে আনেন - এদিক থেকে আমাদের সুরঞ্জনাকে একটু রাজী করাই - ভয়েস আর মিউজিক হয়ে যাবে এই ক'জন কে পেলে - বাকিটা আমি দেখব আর আপনার কাজ তো আপনি আগেই করে রেখেছেন।

তারেক অণু's picture

আহ, আপনার সে পোস্টকার্ড গুলো দারুণ হচ্ছিল !

খেকশিয়াল's picture

তোর এই পোস্টে মনটা ভইরা গেল রে অণু! আমি ছোটবেলার থিকা লঞ্চে গ্রামের বাড়ি যাই, পথে কত নদী পড়ে। নদী আমার খুব প্রিয়। কতদিন যাওয়া হয় না দেশের বাড়ি। ছবিগুলি দেইখা নস্টালজিক হইয়া গেলাম।

-----------------------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

তারেক অণু's picture

দাড়া দেশে আসি, যামুনে একসাথে--

আব্দুল্লাহ এ.এম.'s picture

প্রথম ছবিটির নৌকার পাল অত্যন্ত অর্থবোধক!
বাঙালী নদীর এই শীর্নদশা কিন্তু পরিকল্পিত, যমুনায় এ নদীর উৎসমুখে একটি সলুইস গেট নির্মান করে নদীটিকে পরিকল্পিতভাবে স্রোতহারা করে রাখা হয়েছে, তা না হলে নাকি যমুনার গতিপথ সহসা পরিবর্তিত হয়ে বিরাট বিপর্যয় সৃষ্টি করতে পারে।

তারেক অণু's picture

হুম, নদী যেদিন ক্ষেপে যাবে সেদিনও কি আমরা তাকে বেধে রাখতে পারব?

সাব্বির রহমান 's picture

গুরু গুরু চলুক

তারেক অণু's picture
তাপস শর্মা's picture

সকল মুগ্ধতাকে ছাড়িয়ে যায়...

তারেক অণু's picture

আমার জাতিঙ্গা দেখা বাকী এখনো! ওঁয়া ওঁয়া

প্রোফেসর হিজিবিজবিজ's picture

টানে সবাইকে কিন্তু বাঁধনে জড়ায় না - - - নাহ, ভুল হলো - টানে, এবং বাঁধনেও জড়ায়। নদীর কথা বলছিলাম - এমনই বাঁধনে জড়িয়েছে যে "নদী" শব্দটা শুনলেই আমাদের স্বপ্নের পালে হাওয়ার মাতম লাগে, চোখেমুখে এসে পড়া পানির ঝাপটার মত স্মৃতির ঝাঁপি থেকে কত স্মৃতি এসে ঝাপটা দিয়ে যায়, বিশেষত শৈশব আর কৈশোরের বাঁধভাঙা দিনগুলোর স্মৃতি। আর তাই নদী শুনলেই আমরা উদাস হয়ে যাই।

তার সাথে যদি যোগ দিই এরকম অসাধারণ কিছু ছবির সমারোহ, তাহলে তা একটানে নিয়ে যায় স্বপ্নের এক প্রতীকি জগতে ---

শুধু ধন্যবাদ দিয়েই ছেড়ে দিচ্ছি হে পরিব্রাজক, না বলা কথা ও ভালোলাগাগুলো নিশ্চয়ই বোঝা যাচ্ছে।

তারেক অণু's picture

দারুণ বলেছেন, নদী শুনলেই অবগাহন করতে ইচ্ছা করে, আশ মিটিয়ে।

তারিক's picture

ভাইরে, অনেক অনেক ধন্যবাদ।

তারেক অণু's picture
স্বাধীন's picture

গুরু গুরু গুরু গুরু গুরু গুরু

তারেক অণু's picture
দীপালোক's picture

পদ্মা, মেঘনা - চোখে দেখিনি কোনদিন। কিন্তু আপনার ছবিব্লগ দেখে মনে হল, এ তো আমার খুব চেনা। বড্ড আপন।
আসলে সব নদী বোধ হয় একইরকম। দেশ-কাল নির্বিশেষে।

তারেক অণু's picture

উত্তম জাঝা! আসলে সব নদী বোধ হয় একইরকম। দেশ-কাল নির্বিশেষে।

নাহিয়েন's picture

এখনো নদীর সংস্পর্শে আসি নি। ছবিগুলো দেখে তাই একটা দীর্ঘশ্বাস বেরিয়ে এল।

তারেক অণু's picture
অতন্দ্র প্রহরী's picture

আপনার চোখে বাংলাদেশকে নতুন করে আবিষ্কার করি বারবার। চলুক

তারেক অণু's picture

১০ টাকা দেন খাইছে

অতন্দ্র প্রহরী's picture

এরপর দেশে আসেন, রাব্বানীর চা খাওয়ায়ে দিবোনে। দেঁতো হাসি

তারেক অণু's picture
সুমাদ্রী's picture

অসম্ভব সুন্দর সব ছবি।

অন্ধকার এসে বিশ্বচরাচর ঢেকে দেওয়ার পরেই
আমি দেখতে পাই একটি দুটি তিনটি তারা জ্বলছে আকাশে।।

তারেক অণু's picture
সুমিমা ইয়াসমিন's picture

সুন্দর!

তারেক অণু's picture
হযরত's picture

ছোট-বড় অনেকগুলো নদী

ছিল চলতি পথে, অনেকগুলো

নৌকাও ছিল ঘাটে বাধা

হাওয়া ছিল স্রোতের অনুকূলে

কিন্তু আমার অদ্ভূতুরে মতি

যাত্রা করলাম

পথ, হাওয়া আর স্রোতের বিপরীতে

গুন টেনে টেনে

যে পথ সহজ, যে পথে যাওয়া সোজা

যেই পথে যায় সব স্বাভাবিক মানুষ

যে পথে হাওয়া টেনে নিয়ে যাবে

পাল তুলে দিলে, স্রোতের অভিমুখে

যে পথে গেলে যাওয়ার পরেও

ক্লান্ত হবেনা পেশি, যাওয়ার পরে'গা

টের পাওয়া যাবে পথ শেষ হলো

যাত্রা এবং পৌছে যাওয়ার মাঝে

কতোগুলো ঘাট ছুয়ে যেতে হয়

বোঝাই যাবে না যেই পথে গেলে-

সেই পথে যেতে মনই টানেনা। দেখে

মনের মতিতে বিপরিত পথে যাচ্ছি

হাওয়া ভেঙ্গে ভেঙ্গে নৌকাটাকেই

গুনে টেনে টেনে, স্রোতের বিপরীতে।

তারেক অণু's picture
মেহবুবা জুবায়ের's picture

কী অসাধারণ সব ছবি, তেমনি দারুণ নামকরণ। ছবি দেখে চোখ জুড়িয়ে যায়, নামকরণে মন ভরে যায়। " আমারে নিবা মাঝি লগে?" ছবিটা দেখে নিজের অজান্তেই মনে হয়েছে আহা যেতে যদি পারতাম ওদের সাথে। সত্যি অণু এক কথায় অপূর্ব।
তোমার ধরণটা আলাদা। খুব অবাক হয়েছি। ঠিক যেমনি অবাক হয়েছিলাম সেদিন সকাল বেলা। বলেছিলে আসবে, ভাবিনি সত্যিই আসবে। তাও আবার উপরি হিসেবে অমিত ও নূপুরকে নিয়ে।
এই দীর্ঘ জীবনে উপহার তো কম পাইনি। কিন্তু আমাকে দেওয়া তোমার এই পোস্টটা আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ উপহার হয়ে থাকলো।
যদিও তোমাকে স্পন্সর করবো বলে যে কথাটা লিখেছো, তারপর পোস্টটাকে কেমন কেমন ঘুষ ঘুষ লাগছে রে।) দেঁতো হাসি তোমার আসা কবে? একমাস আগে জানাবে।

সবার আগে আমার মন্তব্য করা উচিত ছিলো, কারণ এই পোস্টটা আমার জন্য। করতে পারিনি, মাফ করে দিও।

তারেক অণু's picture

লেখা -গুড়- হয়েছে

হে হে, ঘুষ না, ওটা আমাদের ভাই-বোনদের মস্করা ! বুঝলেন না?

তবে প্ল্যানে অনেক পরিবর্তন আসল এই বছর, জানাব আপনাকে। ভালো থেকেন সবসময়!

রিক্তা's picture

ছবিগুলো অনেক অনেক সুন্দর। আপনি ভাই সারা পৃথিবীতে মাথা পিছু গড় ইর্ষার পরিমান বাড়িয়ে দিয়েছেন। আপনি যদি এতো সুন্দর ছবি তোলেন তাহলে বই পড়েন কখন? আর যদি বইই পড়েন তাহলে এতো মুভি দেখেন কখন? এতদেশে দেশে ঘুরেনই বা কখন আর ব্লগই লেখেন কখন? চিন্তিত

--------------------------------
হে প্রগাঢ় পিতামহী, আজো চমৎকার?
আমিও তোমার মত বুড়ো হব – বুড়ি চাঁদটারে আমি করে দেব বেনোজলে পার
আমরা দুজনে মিলে শূন্য করে চলে যাব জীবনের প্রচুর ভাঁড়ার ।

তারেক অণু's picture

সেগুলো করার জন্য কয়েকজন আছে।

আমি শুধু ব্লগ দিয়ে ইন্টারনেট চালাই চিন্তিত

অতিথি লেখক's picture

আমারও একই প্রশ্ন!!
কেমনে কি??!!!!!
চিন্তিত

------------------
সুবোধ অবোধ
--------------------
শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি কেন এত বোকা হয়?!!

তারেক অণু's picture

কইলাম তো!

কালা মিয়া's picture

গুরু গুরু হাততালি
আহ্‌ ! নানা বাড়ির ডাকাতিয়া নদীটার কথা মনে করিয়ে দিলেন। কতদিন দেখিনা নদীটাকে । মন খারাপ

তারেক অণু's picture
অতিথি লেখক's picture

আপনের নামে কেইস হওয়া উচিৎ-এইসব পোস্ট করেন আর সবার ইমোশোন এ খোঁচা মারেন!!!
নদী পারের পুলা তো,তাই নদী দেইখা পুরাই উদাস হয়া গেলাম!!!

----------------------
সুবোধ অবোধ
-------------------------
শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি কেন এত বোকা হয়?!!

তারেক অণু's picture

চরম উদাস হন নি তো? চিন্তিত

উজানগাঁ's picture

সুন্দরম!

সিলেটের নদী নিয়ে একটা লেখা শুরু করেও শেষ করা হয়নি। আপনার লেখা দেখে মনে হল শীঘ্রই শেষ করে ফেলতে হবে। খাইছে

তারেক অণু's picture
অতিথি লেখক's picture

অসাধারন ছবি ।

তারেক অণু's picture
অতিথি লেখক's picture

অসাধারন ছবি।

লিমন ভুইয়া

তারেক অণু's picture
প্রৌঢ় ভাবনা's picture

ফাটাফাটি !

তারেক অণু's picture
ঈয়াসীন's picture

চলুক

------------------------------------------------------------------
মাভৈ, রাতের আঁধার গভীর যত ভোর ততই সন্নিকটে জেনো।

তারেক অণু's picture
শিমু's picture

বাহ ! এত দারুন ছবি কিভাবে তোলে মানুষ !!!

আফসোস! পদ্মার চরে কুমির নাই। থাকলে তো আপনি খাইছে

তারেক অণু's picture

ঘড়িয়াল ছিল আগে ! এখন সেগুলোও শেষ।

অতিথি লেখক's picture

মিয়া, আপ্নে দেখতেসি আমারে সত্য সত্যই ঘর ছাড়া করে ছাড়বেন!!! ইয়ে, মানে... যাই হোক, সচলায়তনে লেখা শুরু করলাম। আপনার দোয়াপ্রার্থী!!! লইজ্জা লাগে -- মুগ্ধ অভিযাত্রিক

তারেক অণু's picture

ঘর ছাড়লেই পৃথিবী দেঁতো হাসি

অতিথি লেখক's picture

সবগুলো ছবি অসাধারন হয়েছে,কতোটা অসাধারন হয়েছে সেটা প্রকাশ করতে কোন শব্দ পাচ্ছিনা খুজে।নিজের ভিতর শব্দ ভান্ডার কম হলে যা হয় আর কি।আপনার মতো আমারে শৈশব কেটেছে পদ্মার পাড়ে,কৈশোর কেটেছে মেঘনার খরা স্রোতে আর ভাঙ্গন দেখে।তাই নদী আমার ভালোলাগার সব অনুভূতি নিয়ে বেচে আছে।এখন এই যৌবনেও এসে দেখি আমি নদীর পাশে।এখন ও মেঘনা নদীর ধারে আমি থাকি।বিকেলে যাই নদী পাড়ে হাটতে,আর তখন জেগে উঠে স্মৃতির পাতায় শৈশব আর কৈশোর।শৈশব আর কৈশোরের মতো ভালো আছোতো আমাদের সব নদীগুলো?ভালোথাকুক অপরুপ নাম আর সৌন্দের্য ভরা আমাদের পদ্মা মেঘন যুমনা,শীতলক্ষ্যা,আত্রাই,কর্নফুলি সহ জানা না জানা ছড়িয়ে থাকা আমাদের ছোট বড় নদীগুলো।

মাসুদ সজীব

তারেক অণু's picture
অতিথি লেখক's picture

কোলাকুলি

মাসুদ সজীব

তারেক অণু's picture
স্পর্শ's picture

এখন সব ছেড়েছুড়ে দেশে চলে যেতে ইচ্ছে হচ্ছে।


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...

তারেক অণু's picture

আহেন

নরম মানুষ's picture

চলুক

Post new comment

The content of this field is kept private and will not be shown publicly.
Image CAPTCHA
Enter the characters shown in the image.